টানা পরিশ্রমে বাড়ে স্ট্রোকের ঝুঁকি

অনলাইন ডেক্স:

দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করা স্ট্রোক বা মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের ঝুঁকি বাড়ায়। সম্প্রতি পাঁচ লাখ লোকের ওপর গবেষণা চালিয়ে এই তথ্য দিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। গবেষণাটির তথ্য সংগ্রহের জন্য জোর দেয়া হয় যারা ৯টা থেকে ৫টা পর্যন্ত পরিশ্রম করেন তাদের ওপর। গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, যারা টানা অনেক সময় ধরে কাজ করেন, তাদের স্ট্রোকের ঝুঁকি অনেক বেড়ে যায়।

বিশেষজ্ঞরা বলেন, যেসব কাজে চাপ বেশি, সে ধরনের চাকরি জীবনযাপনকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। গবেষণায় বলা হয়, যারা সপ্তাহে ৩৫ থেকে ৪০ ঘণ্টা কাজ করেন, তাদের তুলনায় যারা সপ্তাহে ৪৮ ঘণ্টা কাজ করেন তাদের ক্ষেত্রে স্ট্রোকের ঝুঁকি ১০ শতাংশ বেশি থাকে। এ ছাড়া সপ্তাহে ৫৪ ঘণ্টা কাজ করলে ২৭ শতাংশ এবং ৫৫ ঘণ্টা কাজ করলে ৩৩ শতাংশ ঝুঁকি বেশি থাকে স্ট্রোকের।

ইউনিভার্সিটি কলেজ লন্ডনের এপিডেমিওলজি বিভাগের অধ্যাপক ডা. মিকাকিভিমাকি জানান, ১০ বছরে সপ্তাহে ৩০ থেকে ৪০ ঘণ্টা কাজ করা এক হাজার চাকরিজীবীর মধ্যে স্ট্রোকের ঘটনা পাঁচটির কম দেখা যায়। আর সপ্তাহে ৫৫ ঘণ্টা কাজ করা এক হাজার চাকরিজীবীর মধ্যে ১০ বছরে স্ট্রোকের ঘটনা অন্তত ছয়টি দেখা যায়। মিকাকিভিমাকি আরো জানান, গবেষণাটি এখনো বেশ প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। এ নিয়ে আরো বিশদ গবেষণা প্রয়োজন। গবেষণায় বলা হয়েছে, বাড়তি চাপের সঙ্গে দীর্ঘ সময় ধরে কাজ করা অথবা অনেকক্ষণ এক জায়গায় বসে থাকা স্বাস্থ্যের জন্য ঝুঁকি তৈরি করে এবং এটা স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়।

ডা. মিকাকিভিমাকি বলেন, স্বাস্থ্যকর জীবনযাপনের জন্য মানুষের একটু বেশি সচেতন হওয়া প্রয়োজন। বিশেষ করে নিয়মিত তাদের রক্তচাপ মাপা উচিত। দ্য স্ট্রোক অ্যাসোসিয়েশনের ডা. শামিম কাদির বলেন, অনেকক্ষণ ধরে বসে কাজ করা মানে নিজের প্রতি খেয়াল করার সময় কমে যাওয়া। আমরা পরামর্শ দেব, আপনারা সব সময় রক্তচাপ মাপবেন এবং যদি স্ট্রোকের ঝুঁকি থাকে তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন। এ ছাড়া পরিবেশ ও জিনগত কারণের পাশাপাশি কায়িক পরিশ্রম করা, মানসিক চাপ, অতিরিক্ত মদ্যপান-এগুলোও স্ট্রোকের জন্য দায়ী। -বিবিসি অনলাইন।

মানবকণ্ঠ/এসএস

Leave a Reply

Your email address will not be published.