বেগমগঞ্জে বন্দুক যুদ্ধে যুবদল নেতা নিহত, ৫ পুলিশ আহত

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার আলাইপুর ইউনিয়নে পুলিশের সাথে বন্দুক যুদ্ধে মো. আলম (৩০) নামের এক যুবদল নেতা নিহত হয়েছে। এসময় ৫জন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ১টি পিস্তল, ১টি পাইপগান, ৩টি চোরা, ৫টি রড ও গিরিল কাটার উদ্ধার করে।

বুধবার (২৩ আগস্ট) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে দাসপাড়া গ্রামের দাসে’গো বাগানে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মো. আলম বিপুর গ্রামের আবুল কাশেমের ছেলে। সে আলাইয়াপুর ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক ছিল।

পুলিশ জানায়, বুধবার সন্ধ্যায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে একাধিক মামলার আসামী ডাকাত আলমকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যমতে রাতে অস্ত্র উদ্ধারের জন্য দাসপাড়া গ্রামের দাসে’গো বাগানে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় আলমের সহযোগিরা পুলিশের ওপর এলোপাতাড়ি গুলি ছুঁড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি ছুঁড়লে পালাতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ হয় ডাকাত আলম। ঘটনাস্থল থেকে অস্ত্র উদ্ধার করা হয়।
পরে আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বেগমগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাজেদুর রহমান সাজিদ জানান, নিহত ডাকাত আলমের বিরুদ্ধে থানায় ১০টি ডাকাতির মামলা রয়েছে। সে সন্ত্রাসী জিসান বাহিনীর একজন সক্রিয় সদস্য ছিল।

এদিকে নিহতের পরিবারের দাবী, গত ২২আগস্ট সকালে পুলিশ আলমকে বাড়ী থেকে আটক করে নিয়ে আসে এবং বুধবার রাতে তাকে ক্রসপায়ারে হত্য করে।

আলাইয়াপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. মানিক জানান, নিহত আলম আলাইয়াপুর ইউনিয়ন যুবদলের যুগ্ম-আহবায়ক ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.