কবিরহাট থেকে অপহৃত শিশু সুবর্ণচরে উদ্ধার, আটক-২

কবিরহাট: নোয়াখালীর কবিরহাট উপজেলার ধানসিঁড়ি ইউনিয়ন থেকে অপহৃত মো. রনি (৬) নামের এক শিশুকে জেলার সুবর্ণচর উপজেলা থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। ঘটনায় জড়িত থাকায় বেলাল (১৯) ও পারভেজ (১৭) নামের দুই যুবককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয়রা।

সোমবার (২৮ আগস্ট) দুপুর ২টার দিকে সুবর্ণচর উপজেলার আটকপালিয়া বাজার থেকে অপহৃতকে উদ্ধার করা হয়। অপহৃত মো. রনি ধানসিঁড়ি ইউনিয়নের নলুয়া গ্রামের কামরুল ইসলামের ছেলে। সে নলুয়া শরিয়তনগর মিফতাহুল উলুম তালিমূল কোরআন মাদ্রাসার ছাত্র।

আটককৃতরা হচ্ছেন- নলুয়া গ্রামের মইদুল হকের ছেলে বেলাল হোসেন ও আবু তাহেরের ছেলে ও ধর্মপুর হাজীরহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের ৯ম শ্রেণির ছাত্র মো. পারভেজ।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ২৭ আগস্ট রোববার দুপুর ১২টার দিকে নলুয়া শরিয়তনগর মিফতাহুল উলুম তালিমূল কোরআন মাদ্রাসা সামনে তেকে ললিপপ দেওয়ার কথা বলে রনিকে একটি বাইসাইকেলে করে অপহরণ করে নিয়ে যায় বেলাল ও পারভেজ। পরে বিষয়টি মাদ্রাসার অন্য ছাত্ররা শিক্ষকদের অবগত করলে তারা বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিকে জানায়। একইদিন বিকেলে একটি অপরিচিত মোবাইল নাম্বার থেকে অপহৃতের পরিবারের কাছে ৬লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবী করা হয়।

এর সূত্র ধরে সোমাবার সকালে ধানসিঁড়ির ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান নুুরুল আলম ভূইয়া পারভেজ অপহরণকারী বেলালের বাড়ীতে গিয়ে তাকে আটক করে। পরে তার দেওয়া তথ্য মতে অন্য অপহরণকারী পারভেজকেও আটক করা হয়। আটককৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের পর তারা রনিকে সুবর্ণচর উপজেলার আটকপালিয়া বাজারের একটি দোকানে আটক করে রাখার কথা স্বীকার করলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সহযোগিতায় শিশু রনিকে উদ্ধার করা হয়।

কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মির্জা মোহাম্মদ হাছান বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, অপহরণকারীরা রনিকে প্রথমে লক্ষ্মীপুরের রামগতি উপজেলায় ও পরে সুবর্ণচরে নিয়ে আটক করে রাখে। ভিকটিমকে উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। পরবর্তীতে ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিজস্ব প্রতিবেদক/এমআরআর/২৮ আগস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published.