মডেলকে নগ্ন করে কারাগারে!

অনলাইন ডেস্ক

মিসরের প্রাচীন একটি মন্দিরের সামনে নগ্ন হয়ে ফটোশুট করায় বেলজিয়ামের মেরিসা পাপেন নামের এক মডেলকে আটক করে কারাগারে পাঠিয়েছে পুলিশ। শুধু তাই নয়, কারাগারে সবার সামনে এক দিন নগ্ন হয়ে থাকতে বাধ্য করে পুলিশ।

বেলজিয়ামের মডেল মেরিসা গিজার পিরামিড ও মিশরীয় প্রাচীন মন্দিরের সামনে ফটোশুট করতে গিয়েছিলেন। নগ্ন ফটোশুটের জন্য স্থানীয় এক গাইডকে তাদের মোটা অঙ্কের ঘুষও দিতে হয়। সব কিছু ঠিকঠাকই ছিল। হঠাৎই মেরিসার ফটোশ্যুট দেখে ফেলেন চারজন নিরাপত্তারক্ষী। ঘটনাস্থলেই মেরিসা ও ফটোগ্রাফারকে গ্রেফতার করে তারা। ওই অবস্থাতেই দু’জনকে জেলে ঢুকিয়ে দেয়। মেরিসার কথায়, ‘প্রায় দু’বছর ধরে বন্য ও মুক্ত হয়ে ঘুরেছি ৫০টি দেশে। কখনও এরকম হেনস্থা হতে হয়নি। মিশরে যা হলো।’

মডেল মারিসা বলেন, ‘আমরা তাদের বোঝানোর চেষ্টা করেছিলাম যে মিসরীয় সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই আমরা এটা করছি। কিন্তু তারা নগ্নতা ও শিল্পের মধ্যে কোনো ধরনের সম্পর্ক বুঝতে নারাজ। তাদের দৃষ্টিতে নগ্ন ফটোশুট পর্নো বা এ ধরনের কিছু। অথচ এই দেশটিই ক্লিওপেট্রাকে নিয়ে গর্ব করে!’

মডেল পাপেনের অভিযোগ, তীব্র ঠাণ্ডায় তাকে সারা রাত জেলে নগ্ন রাখা হয়। কারণ, ওদের চোখে, এটা নাকি পর্ন। মিশরীয় সংস্কৃতিকে আমরা কতটা শ্রদ্ধা করি, তা ওদের বোঝালাম। কিন্তু ওরা অবুঝ। কিছুতেই বোঝাতে পারলাম না, নগ্নতাও একটা শিল্প। কোনও রকমে মোটা টাকা জরিমানা দিয়ে ফিরলাম। এই দেশটাই নাকি ক্লিয়োপেট্রা নিয়ে গর্ব করে!’

Leave a Reply

Your email address will not be published.