কোন্দল ভেঙে ফের চাঙ্গা সেনবাগ বিএনপি

নেত্রীর আহবানে বন্যাদুর্গতদের ত্রান বিতরণের পর থেকে নোয়াখালীর সেনবাগে বিএনপির দীর্ঘদিনের অভ্যন্তরীণ আবারো চাঙ্গা হয়ে উঠেছে। এক গ্রুপের নেতৃত্বদেন চেয়ারপারর্সনের উপদেষ্টা ও সাবেক বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ জয়নুল আবদীন ফারুক অপর গ্রুপের নেতৃত্বদেন বিএনপির কেন্দ্রীয় জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী মফিজুর রহমান। ত্রান বিতরন নিয়ে অভিযোগ-পাল্টা অভিযোগ আর সংবাদ সম্মেলন-পাল্টা সংবাদ সম্মেলন, হামলা ও মামলার মধ্যে দিয়ে প্রকাশ্য রুপ নিয়েছে বিরোধ। বিএনপির কেন্দ্রীয় জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী মফিজুর রহমান বিএনপির কেন্দ্রীয় জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য কাজী মফিজুর রহমান সেনবাগ শহরের কাদরাস্থ শফি ভবনে এক সংবাদ সম্মলন করেন ১৮ই আগষ্ট বিকেলে।

২৯ আগষ্ট ফারুকের হুমকি দমকি ও টান টান উত্তেজনা উপক্ষো করে পৌরসভা, অর্জনতলা, কেশারপাড় ইউনিয়নে কোন রকম জামেলা ছাড়াই ত্রান বিতরন করেন কাজী মফিজুর রহমান গ্রুপ। একই দিন সন্ধ্যায় ছমিরমুন্সীহাটে কাবিলপুর ইউনিয়নের ত্রান বিতরন নিয়ে নেতাকর্মীদের নিয়ে মিটিং করার সময় জয়নুল আবদিন ফারুক গ্রুপ অতরকিত কাজী মফিজুর রহমানের সেকেন্ড ইন কমান্ড হিসেবে পরিচিত ও জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ন সম্পাদক আবদুল্যা আল মামুন হামলা চাললিয়ে গুরুতর আহত করে।

এসময় উপস্থিত তাজু ও খোরশেদ আলম সহ ৫জন আহত হয়। এ ঘটনায় আহত আবদুল্যা আল মামুন নীজে বাদী হয়ে ৩০ আগস্ট সেনবাগ থানায় একটি মামলা দায়ের করা এতে সাবেক এমপি ও বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্ঠা জয়নুল আবদিন ফারুককে ১নং আসমী করে আরো ১৯জনের নামিয় অজ্ঞাত ৩০/৩৫ জনকে আসামী করে। সে মামলায় জয়নুল আবদীন ফারুকসহ ১৯ নেতাকর্মী ৬-সেপ্টম্বর হাইকোটের বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি আমীর হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত অবকাশকালীন বেঞ্চ জামিন নেয়।

১লা সেপ্টেম্বর বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে উভয় গ্রুপ অনুষ্ঠান করতে চাইলে উপজেলা বিএনপি অফিসে সংঘর্ষ ও হামলার আশংখ্যা পুলিশ কোন পক্ষকে কোন কর্মসূচী পালন করতে দেয় নি। প্রতিপক্ষের হামলা আশংখ্যায় ১৯ শে আগষ্ট চট্টগ্রামের হোটেল সেন্ডমাটিনে ডমুরুয়া ইউনিয়ন বিএনপির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ১৮ অক্টোম্বর কেশারপাড় ইউনিয়নে শুরু হওয়া বিএনপির ৭ নং ওয়ার্ড কমিটির প্রথম সম্মলনে হামলা ভাঙচুর ঘটনায় সভা পন্ড হয়ে যায়। ১৯ ও ২০ অক্টোম্বর ৮ ও ৯ ওয়ার্ডে সম্মলনে প্রতিপক্ষের প্রতিরোধের মুখে পন্ড হয়ে যায়। তবে ৮ নং ওয়ার্ডে ডাক্তার জাকের হোসেন সভাপতি, আবদুল মান্নান সেক্রেটারি কে দিয়ে দায় সারা একটি প্রকাশ করলেও সেখানে সমজতার ভিত্তিতে কমিটি হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে বিএনপির একাধিক নেতা কর্মী সাথে আলাপকালে তারা পরিচয় প্রকাশ না করা শর্তে জানায়, ফারুক ত্যাগি নেতা কর্মীদের অবমুল্যায় করে নীজের ইচ্ছা মত অর্থের বিনিময়ে দলের চিন্তা না করে নীজের চিন্তা করে কমিটি করে গ্রুপিং এর বীজ তিনি বোপন করেছে। সেনবারে বিএনপির গ্রুপিং জন্য তিনি দায়ী ।

জাহাঙ্গীর পাটোয়ারী/এমআরআর/২৪ অক্টোবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.