একরাম হত্যা মামলা দুই আসামীর পক্ষের আইনজীবিদের জেরা

ফেনী : ফেনীর ফুলগাজী উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগ নেতা একরামুল হক একরাম হত্যা মামলায় তদন্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদের জেরা অব্যাহত রয়েছে। রবিবার মামলার অভিযোগপত্রভূক্ত দুই আসামীর পক্ষে দুইজন আইনজীবি তাকে জেরা করেন। সোমবার (৩০ অক্টোবর) আবারও অন্যান্য আসামীর পক্ষে তদন্ত কর্মকর্তাকে জেরা করার জন্য সময় ধার্য্য করেছেন আদালত।

ফেনী জজ আদালতের পিপি হাফেজ আহাম্মদ জানায়, রবিবার জেলা ও দায়রা জজ আমিনুল হকের আদালতে চেয়ারম্যান একরাম হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম আজাদকে জেরা করেন আসামী জাহাঙ্গীর আদেলের পক্ষে আইনজীবি রানা দাস গুপ্ত ও অপর আসামী হুমায়ুনের পক্ষে জেরা করেন আইনজীবি কামরুল হাসান। তিনি জানান, এ মামলায় ৫৯ জন সাক্ষীর মধ্যে বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তাসহ এ যাবত ৫১ জন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। মামলার অভিযোগপত্রভুক্ত ৫৬ জন আসামীর মধ্যে বর্তমানে ১৫ জন কারাগারে, ২৫ জন জামিনে ও ১৫জন পলাতক রয়েছেন। জামিনে থাকা মো. সোহেল প্রকাশ রুটি সোহেল নামে একজন আসামী র‌্যাবের সাথে বন্দুকযুদ্ধে মারা গেছেন। মামলার প্রধান আসামী বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনার হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেও এখনো কারাগার থেকে বের হননি।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালের ২০ মে ফেনী শহরের একাডেমি এলাকায় প্রকাশ্য দিবালোকে চেয়ারম্যান একরামুল হককে গাড়ীর গতিরোধ করে কুপিয়ে, গুলি করে ও গাড়ীসহ পুড়িয়ে হত্যা করে আসামীরা। এ ঘটনায় চেয়ারম্যান একরামুল হকের ভাই রেজাউল হক জসিম বাদী হয়ে বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন মিনার চৌধুরীসহ অজ্ঞাত ৩০-৩৫ জনকে আসামী করে ফেনী সদর মডেল থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

ফেনী প্রতিনিধি/নোয়াখালীনিউজ/এসইউ

Leave a Reply

Your email address will not be published.