লক্ষ্মীপুরে প্রতারনা করে বৃদ্ধের দোকানঘর দখলে অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুরে জমি এওজ বদলের কথা বলে মো. আমির হোসেন নামে ষাটোর্ধ এক বৃদ্ধের দোকানঘর প্রতারনার মাধ্যমে দখল করে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে নূরনবী নামে এক ভূমিদস্যুর বিরুদ্ধে। এছাড়াও ব্যবসার কথা বলে আরো ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়া সে। এ ঘটনায় সোমবার (৩০ অক্টোবর) দুপুরে লক্ষ্মীপুর শহরের দৈনিক রূপসী লক্ষ্মীপুর পত্রিকার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করেন ভূক্তভোগী ওই বৃদ্ধ। ক্ষতিগ্রস্ত বৃদ্ধ আমির হোসেন সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের নন্দীপুর গ্রামের মৃত আবদুল হক মুন্সীর ছেলে। অভিযুক্ত নুরনবী ও মোস্তফা একই এলাকার জবেদ উল্যার ছেলে।

সংবাদ সম্মেলনে বৃদ্ধ আমির হোসেন বলেন, সদর উপজেলার বশিকপুর ইউনিয়নের পদ্দার বাজারে (৫তলা পাউন্ডেশন নেওয়া) একতলা বিশিষ্ট আমার দু’টি দোকানঘর আছে। যার অপর পাশে নুরনবী ও মোস্তফাদের দোকান রয়েছে। এওজ বদলের কথা বলে নুরনবী ও মোস্তফার প্রত্যারনার মাধ্যমে আমার দোকানঘর দুটি নিজেদের বাবার নামে দলিল করে দখলে নেয়। ওই দলিলে বিনিময়ে আমাকে ভূয়া ৩০টি দাগে দেড় শতাংশ জমি হস্তান্তরের কথা উল্লেখ করে। অথচ সরেজমিনে কোন জমি বা দোকানঘর আমাকে দখল বুঝিয়ে না দিয়ে প্রতারনা করে।
তিনি আরো জানান, এছাড়া ভূমি দস্যু নুরনবী প্রতিমাসে ৭ হাজার টাকা লাভ দিবে বলে ব্যবসার কথা বলে ষ্ট্যাম্পের মাধ্যমে ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। ব্যবসার টাকা না পেয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারি ভূমিদস্যু নরনবী প্রত্যারনার মাধ্যমে আমার জমি ও টাকা আত্মসাত করে নিয়েছে। এ ঘটনায় লক্ষ্মীপুর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতে মামলা হয়েছে। বৃদ্ধ ও সহজ-সরল হওয়ায় ভূমিদস্যু নুরনবী ও তার ভাই মোস্তফা প্রতারনার মাধ্যমে আমার দোকান ঘর ও ৫ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এ ঘটনার তদন্তপূর্বক দোকানঘর দুটিসহ জমি ও আত্মসাতকৃত টাকা পুনরুদ্ধারে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন বৃদ্ধ আমির হোসেন।

এসময় সংবাদ সম্মেলনে লক্ষ্মীপুর জেলায় কর্মরত প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি/নোয়াখালীনিউজ/এসইউ

 

Leave a Reply

Your email address will not be published.