কোম্পানীগঞ্জে বাল্যবিবাহ বন্ধ, খাবার গেলো এতিমখানায়

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. মাহফুজুর রহমানের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেলো ৭ম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী। শুক্রবার দুপুরে মুছাপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে বাল্যবিবাহের আয়োজন বন্ধ করা হয়েছে। এসময় বিয়েতে আসা ৩শ অতিথির জন্য রান্না করা খাবার কনেপক্ষের স্ব-ইচ্ছায় স্থানীয় এতিমখানায় দিয়ে দেয়া হয়।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা মো. নূরনবী জানান, ‘গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমরা জানতে পারি উপজেলার মুছাপুর ৫নং ওয়ার্ডের আলম ব্যাপারী বাড়ির সৌদি প্রবাসী হুমায়ুন কবির মেয়ে ও মুছাপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণির স্কুলছাত্রী খাদিজা খাতুন (১৪) সাথে রামপুর ইউনিয়নের বিষু ব্যাপারী বাড়ির মৃত মো. হামিদের ছেলে কাতার প্রবাসী মো. মহিউদ্দিনের (২৮) বিয়ে হচ্ছে। সংবাদ পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জামিরুল ইসলাম সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মাহফুজুর রহমানকে ঘটনাস্থলে পাঠান এবং বিয়ে বন্ধ করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য বলেন।’

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. মাহফুজুর রহমান পুলিশের সহায়তায় ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বাল্যবিবাহটি বন্ধ করে বর ও কনের স্বজনদের উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার অফিসে নিয়ে আসেন। সেখানে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গের অনুরোধে কনের ভগ্নীপতি বেলায়েত হোসেন মুচলেকা দেন যে, মেয়ের বয়স ১৮ পূর্ণ হওয়ার পূর্বে তাকে বিয়ে দেয়া হবে না। অপরদিকে বর মো. মহিউদ্দিনও বিয়ে করবেনা বলে মুচলেকা দেন।’

পরে বর ও কনে পক্ষের নিমন্ত্রিত ৩শ অতিথিদের জন্য আয়োজিত খাবার কনেপক্ষ স্ব-ইচ্ছায় স্থানীয় এতিম খানায় দিয়ে দেয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published.