কোম্পানীগঞ্জে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষনের চেষ্টা, আটক-১

কোম্পানীগঞ্জ: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার মুছাপুর ইউনিয়নে ৭ম শ্রেণির এক মাদ্রাসা ছাত্রী (১৪) কে ধর্ষণের চেষ্টার অভিযোগে আইয়ুব আলী (২০) নামের এক যুবককে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় লোকজন। ঘটনায় ভিকটিম বাদী হয়ে আটককৃত আইয়ুব আলীর বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছে।

সোমবার (২০ নভেম্বর) দুপুরে বিচারিক আদালতের মাধ্যমে আটককৃত আইয়ুবকে কারাগারে প্রেরণ করা হয়েছে। আটককৃত আইয়ুব আলী মুছাপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের আহছান উল্যা সর্দারের ছেলে।

ভিকটিম জানায়, রবিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার খালার বাড়ির সামনে থেকে বখাটে আইয়ুব আলী তাকে জোর পূর্বক ধরে ৮নং ওয়ার্ডে আনোয়ার ভুঁইয়ার নতুন বাড়ির নাইট গার্ডের থাকার একটি ঘরে নিয়ে যায়। পরে আইয়ুব ভিকটিমকে ধর্ষণের জন্য চেষ্টা চালায়। এসময় ভিকটিম চিৎকার করলে স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে আইয়ুব দ্রুত পালিয়ে যায়।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে রাত ১২ টার দিকে স্থানীয় লোকজন আইয়ুব আলীকে আটক করে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আইয়ুবকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সৈয়দ মো: ফজলে রাব্বী ঘটনা নিশ্চিত করে বলেন, আইয়ুবের বিরুদ্ধে বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে। তাকে নোয়াখালী বিচারিক আদালতে মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

উপজেলা প্রতিনিধি/এমআরআর/২০ নভেম্বর

Leave a Reply

Your email address will not be published.