নোয়াখালীতে আনন্দ শোভাযাত্রা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

নোয়াখালী: নোয়াখালী জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শোভাযাত্রা, সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মধ্যদিয়ে উদ্যাপিত হলো বঙ্গবন্ধুর ৭ মার্চের ভাষণের বিশ^ স্বীকৃতি।

শনিবার সকাল ১০টায় জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে মাইজদী শহরে আনন্দ বর্ণিল শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে সরকারি বেসরকারি কর্মকর্তাদের পাশাপাশি মুক্তিযোদ্ধা, সংস্কৃতিকর্মী, শিক্ষক, শিক্ষার্থী সহ সর্বস্তরের লোকজন অংশগ্রহণ করে।

শোভাযাত্রা শেষে শিল্পকলা একাডেমি মাঠে জেলা প্রশাসক মোঃ মাহবুব আলম তালুকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন পুলিশ সুপার মোঃ ইলিয়াছ শরীফ পিপিএম-সেবা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট শিহাব উদ্দিন শাহীন, নোয়াখালী পৌরসভার মেয়র সহিদ উল্লাহ খান সোহেল, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা ইউনিট কমান্ডার মোজাম্মেল হক মিলন, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট কাজী মাহবুবুল আলম, জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা ড.মাহে আলম, এলজিইডির নির্বাহী প্রকৌশলী এম ছাওার, জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মিয়া মোঃ শাহজাহান, সহ-সভাপতি আবু তাহের, জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক সামছুদ্দিন জেহান, শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি আবদুল ওয়াদুদ পিন্টু, সরকারী ও বেসরকারী কর্মকর্তা ও কর্মচারী, স্কুল কলেজ ও মাদ্রসার শিক্ষক-শিক্ষার্থী, বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কুতিক প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিবৃন্দ সহ সকল স্তরের জনগন উপস্থিত ছিলেন । অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন নোয়াখালী আবৃত্তি একাডেমির সভাপতি এমদাদ হোসেন কৈশোর।

আলোচনা সভা শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও বড় পর্দায় মুক্তিযুদ্ধ ভিত্তিক চলচ্চিত্র ওরা ১১ জন প্রদর্শন করা হয়।

কবিরহাট :
নোয়াখালী কবিরহাট উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে শনিবার সকাল ১১ ঘটিকায় কবিরহাটে জাতীর জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ ই মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর “মেমোরি অব দ্যা ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টার”-এ অর্šÍভুক্তির মাধ্যমে “বিশ্ব প্রামণ্য ঐতিহ্যের” স্বীকৃতি লাভের অসামান্য অর্জন উদযাপন উপলক্ষে এক আনন্দ শোভাযাত্রা র‌্যালী কবিরহাট সরকারী কলেজ মাঠ থেকে শুরু করে কবিরহাট বাজার প্রদক্ষিন করে উপজেলা পরিষদ চত্ত্বরে এসে শেষ হয়।
পরে আনন্দ শোভাযাত্রা উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করেন কবিরহাট উপজেলা প্রশাসন,উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্ত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুদ্দিন সাকলান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মফিজ উল্যা বি.কম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান বিবি জয়নব রিতু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নুরুল আমিন রুমি, সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক রায়হান, কবিরহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মির্জা মোঃ হাসান, কবিরহাট সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. শাহ আলম ভুইয়া সহ সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, মেম্বার, বিভিন্ন স্কুল, কলেজ ও মাদ্রাসা থেকে আগত ছাত্র-ছাত্রী এবং স্থানীয় প্রশাসন ও রাজনৈতিক নের্তৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সুবর্ণচরঃ
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ঐতিহাসিক ৭ই মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর “মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিষ্টার” এ অর্ন্তভুক্তির মাধ্যমে “বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্যের”স্বীকৃতি লাভের অসামাণ্য অর্জন উপলক্ষে সারা দেশের ন্যায় সুবর্ণচরে এক বর্ণাঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা ,সাংস্কৃতিক,আলোচনা সভা,ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ২৫ নভেম্বর সকাল ১০টা থেকে দিনব্যাপী এসব কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচীর অংশ হিসেবে সকাল সাড়ে ১০টায় সুর্বণচর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো:আবু ওয়াদুদ এর নের্তৃত্বে উপজেলার সামনে থেকে এক বর্ণঢ্য আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়।

আনন্দ শোভাযাত্রাটি উপজেলার মাঠে থেকে শুরু হয়ে প্রধান প্রধান মাঠ প্রদক্ষিন করে আলোচনা সভায় এসে মিলিত হয়। এছাড়াও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান সহ বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান নিজ উদ্যোগে এ আনন্দ শোভাযাত্রায় অংশগ্রহন করে। শোভাযাত্রায় প্রায় সহ¯্রাদীক মানুষ অংশগ্রন করেণ।

সৈকত ডিগ্রী কলেজ এর প্রভাষক মো: সাইফুল ইসলাম এর উপস্থাপনায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: আবু ওয়াদুদ এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এইচএম খায়রুল আনম চৌধুরী। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো: সহিদ সারওয়ারর্দী,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সালমা সুলতানা চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এডভোকেট ওমর ফারুক ও মোহাম্মদ হানিফ চৌধুরী।

বক্তরা এসময় বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মনিয়ে আলোচনা করেন। প্রধান অতিথি বলেন, বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশের জন্ম হতো না। তিনি বলেন ৭ই মার্চের ভাষণ বাংঙ্গালী জাতিকে মুক্তির পথ দেখিয়েছে। তাই এ ভাষণ ঐতিহাসিক বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিয্য লাভ করায় আমরা আজ গর্বিত।

সভাপতি তার বক্তব্যে বলেন, জাতির জনক বঙ্গবন্ধু জন্ম হয়েছিল বলে আমরা বাংঙ্গালী জাতি আজ বিশ্বের দরবারে মাথা উঁচু করে দাড়িয়েছি।৭ই মার্চের ভাষণ “মেমোরি অব দ্যা ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিষ্টার” এ অর্ন্তভুক্তি ঐতিহাসিক বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিয্য লাভ করায় ইউনেস্কোর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানায়। তিনি বলেন, আগামী প্রজন্ম বঙ্গবন্ধুর আদশ্যে গড়ে উঠুক এ প্রত্যাশা করি।

আলোচনা শেষে সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরন করা হয়।

প্রতিবেদক/নোয়াখালীনিউজ/এসইউ

Leave a Reply

Your email address will not be published.