ফেনী ফ্লাইওভার উদ্বোধন ৪ জানুয়ারি

সদর: আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি বলেছেন, আগামী ৪ জানুয়ারি ফেনীর মহিপালে নির্মিত দেশের প্রথম ৬ লেন ফ্লাইওভারটি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সোমবার বেলা ১১টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মহিপালে ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

মহিপালে ১৮১ কোটি ৪৮ লাখ টাকা ব্যয়ে দেশের প্রথম ৬ লেন ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ সম্পন্ন হয়েছে। আগামী বছরের জুন পর্যন্ত প্রকল্পটির মেয়াদ থাকলেও বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর তত্ত্বাবধানে এর নির্মাণকাজ ৬ মাস আগেই শেষ হয়েছে।

ফ্লাইওভার পরিদর্শনকালে সেতুমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন সেনাবাহিনীর ৩৪ ইঞ্জিনিয়ারিং কনস্ট্রাকশন ব্রিগেডের পরিচালক মেজর জেনারেল সিদ্দিকুর রহমান সরকার, নকশাকার প্রফেসর ড. এম আজাদুর রহমান, ফ্লাইওভার প্রকল্পের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল একেএম রেজাউল মজিদ, ফেনীর জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায়, ফেনীর পুলিশ সুপার এসএম জাহাঙ্গীর আলম সরকার, ফেনী সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মাসুদ করিম, ফেনী সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আবদুর রহমান, ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী প্রমুখ।

উলে¬খ্য, ফেনীর পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের ভোগান্তির নাম ছিল ফেনীর মহিপাল। ফেনী সদর, দাগনভূঞা উপজেলা ছাড়াও পার্শ্ববর্তী নোয়াখালী ও কুমিল¬ার মানুষেরও যাতায়াত ছিল ফেনীতে। ফেনী শহরে ঢুকতেই ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ফেনীর মহিপালে যানজটের কারণে ভোগান্তির শিকার হতেন যাত্রী ও পথচারীরা। ছয় লেনের ফ্লাইওভার উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে কয়েক যুগ ধরে চলে আসা সেই যানজটের অবসান ঘটতে যাচ্ছে বলে স্থানীয়রা মনে করেন।

গতকাল ফ্লাইওভারটি পরিদর্শনকালে সেতুমন্ত্রী আরও জানান, উড়ালসেতু ছয় লেনের হলেও এর নিচের দুই পাশে আরও চার সার্ভিস লেন চালু থাকবে। তিনি আরও জানান, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্ট মহিপালে ১০ লেন সেতুই হচ্ছে।

ফেনী শহরের রামপুরের বাসিন্দা ইয়াছির আরাফাত রুবেল জানান, দীর্ঘদিন পর ফেনীর মহিপালে যানজটের অবসান ঘটতে যাচ্ছে। এই উড়ালসেতুর কারণে দুর্ঘটনাও লাঘব হবে। মহিপাল ফ্লাইওভারটি নির্মাণ করতে গিয়ে আগের পুরান সড়কটি দিয়ে যান চলাচল করতে গিয়ে পুরো রাস্তাটি ভেঙে গেছে; এটি সংস্কার করা হোক।

ফেনী শহরের ব্যবসায়ী ওবায়েদুল¬াহ আল কাফী খুররম জানান, আমরা মনে করেছি, ৬ লেনের কাজ শুধু উদ্বোধনই হবে, বাস্তবায়ন হবে না। আমাদের সে ধারণা মিথ্যা করে দিল। বাংলাদেশের সব সড়কের কাজ সেনাবাহিনীকে দেওয়া হোক। প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ।

ফেনী পৌরসভার প্যানেল মেয়র নজরুল ইসলাম স্বপন মিয়াজী জানান, মহিপালের ফ্লাইওভার এলাকার কাউন্সিলর আমি। প্রতিনিয়তই দুর্ঘটনার খবর আসত। এখন আর সে ধরনের দুর্ঘটনা ঘটবে না।

ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবদুর রহমান বিকম জানান, এটি শেখ হাসিনার অবদান। বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে; আরও এগিয়ে যাবে।

প্রতিবেদক/এমআরআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.