হাতিয়ায় বিশ্ব জলা ভূমি দিবস পালিত

হাতিয়া: জলাভূমি সংরক্ষণে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য সারা পৃথিবীরমত নোয়াখালীর বিচ্ছিন্নদ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার নিঝুমদ্বীপ নামারবাজার এলাকায়ই কোফিস বাংলাদেশ প্রকল্প ও বেসরকারী উন্নয়নসংস্থা ক্রেল এর যৌথ উদ্দ্যেগে বিশ্বজলা ভূমি দিবস পালিত হয়েছে।

শুক্রবার বিকালে স্থানীয় নামারবাজার আইইউসিএন নিঝুমদ্বীপ ফিল্ড অফিস প্রাঙ্গনে যথাযথ মর্যাদায়এ দিবস পালিত হয়। এ উপলক্ষে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী নিঝুমদ্বীপ বিট অফিস থেকে শুরুহয়ে নামার বাজার হয়ে সি-বিচ গিয়ে শেষ হয়। পরে চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও বিজয়ীদের মধ্যে পুরুষ্কার বিতরন এবং এক গুরুত্বপূর্ণ আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা মৎস কর্মকর্তা মোঃ শেখ ফরিদ উদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ক্যাপাসিটি ডেভেল পমেন্টম্যানেজার, ম্যানগ্রোভস ফর দ্যা ফিউচারআই ইউ সি এন এশিয়ামিস মেইভ নাইটেঙ্গেল।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জাতীয় সমন্নয়কারী ম্যানগ্রোভস ফর দ্যা ফিউচারআই ইউ সি এন বাংলাদেশ কান্ট্রি অফিস মুহাম্মদ শাহেদ মাহবুব চৌধুরী, নিঝুমদ্বীপ তদন্ত কেন্দ্রের এসআই মোঃ দুলাল মিয়া, ক্রেল নিঝুমদ্বীপের সাইটম্যানেজার মোঃ অলিউদ্দিন, আই ইউ সি এন নিঝুমদ্বীপ সাইটম্যানেজার অর্জুন চন্দ্র দাস, প্রকল্পের কো-ম্যানেজমেন্ট কমিটি সভাপতি ডাঃ খবিরুল হক বেলাল।

বক্তব্য রাখেন, বিটর্কমকর্তা মোঃ গিয়াস উদ্দিন, র্চওসমানবিট মোঃ কেফায়েত উদ্দিন, ইউপি সদস্য, নিঝুমদ্বীপ।

বক্তারা উপস্থিত সকল কেমৎস্য আইন মেনেচলা ও জলাভূমি রক্ষায় অগ্রনী ভুমিকা রাখার আহবান জানান। এ দিসের মূল লক্ষ্য হচ্ছে স্থানীয় জনগণের মধ্যে জলাভূমির গুরুত্ব তুলেধরা এবং জলাভূমি সংরক্ষণে তাদের ভিতর সচেতনতা বৃদ্ধি করা। নিঝুমদ্বীপ জলাভূমি শুধুমাত্র মাছেরইআবস্থলনা, মাছ ছাড়াও এখানেবাসকরে বিভিন্ন প্রজাতির বিপন্ন প্রাণী। এ বিষয়টি বন্য প্রাণী বিশেষজ্ঞ বক্তব্যের মাধ্যমে জনগণের সামনে তুলে ধরা হয়। সচেতনতা বৃদ্ধি ও জলা ভুমি সংরক্ষনে আইইউসিএন ও ক্রেল প্রকল্পের এই উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়। জলবায়ু পরিবর্তনে মারাত্মক হুমকির মুখে নিঝুমদ্বীপের পরিবেশ, জীববৈচিত্র, সবুজ বেষ্টনী এবং মানুষের জীবন জীবিকা। সংরক্ষিত জাতীয় উদ্যান সংলগ্নমানুষের অপরিকল্পিত বসবাস রক্ষিত এলাকা ও তার নিকটবর্তী অঞ্চল গুলোকে আরো বেশী হুমকির মধ্যে রেখেছে। যার ফলে উজাড় হচ্ছে বন, বিলীন হচ্ছে পরিবেশ ও জীববৈচিত্র। মানুষ ও প্রকৃতির বিরূপ প্রভাব থেকে রক্ষাকল্পে নিঝুমদ্বীপের প্রাকৃতিক সম্পদ, জীববৈচিত্র সংরক্ষন ও নিঝুমদ্বীপ জনগোষ্ঠির দুর্যোগ-ঝুঁকিহ্রাস ও আত্মসামাজিক উন্নয়নের লক্ষ্যে বনবিভাগের মাধ্যমে রক্ষিত বনাঞ্চল ব্যবস্থাপনায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। প্রকৃতির আওতায়বন ও মৎস্য নির্ভরশীল জনগোষ্ঠির অংশগ্রহনে মোক্তারিয়া খালে ১০ হেক্টর জায়গায় মৎস্য অভয়াশ্রম সৃষ্টি জীববৈচিত্র সংরক্ষণ এবং প্রতিবেশ ব্যবস্থা (Eco-System) টিকিয়ে রাখার প্রচেষ্টা চলছে।

এছাড়াও স্থানীয় জনগোষ্ঠির অবকাঠামো মৎস সম্পদ, জীবিকা সংক্রান্ত ঝুঁকি গুলো চিহ্নিতকরণ, পরিকল্পনা এবং স্থানীয় পর্যায়ে দুর্যোগ মোকাবিলার ব্যবস্থা শক্তিশালী করণ কর্মসূচি আরো ব্যাপকহারে প্রয়োজন।

পরে প্রাথমিক ও নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের নিয়ে রচনা ও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন এবং বিজয়ীদের মাঝে পুরষ্কার বিতরন করাহয়। বিকেলে নিঝুমদ্বীপ বিচ প্রাঙ্গনে কাবাডি প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয় এবং কাবাডি খেলায় বিজয়ী ও রানার্স আপদের মাঝে পুরষ্কার প্রদানের মাধ্যমে দিবসের র্কাযক্রম শেষ হয়।

মোঃ শামীমুজ্জামান শামীম

Leave a Reply

Your email address will not be published.