হাতিয়ায় মুক্তিপণ দিয়ে ১৭ জেলের মুক্তি, অপহরণ আরও ৩

হাতিয়া: নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ উপজেলা হাতিয়ার মেঘনা নদীর শাখা সূর্যমুখি খাল থেকে ইঞ্জিনচালিত দুটি নৌকাসহ অপহৃত ১৭ জেলে দুই দিন পর জনপ্রতি ৩০’হাজার টাকা করে মুক্তিপণ দিয়ে মুক্তি পেয়েছে। পুনঃরায় আরো ৩ জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে গেছে জলদস্যু বাহিনী।

শুক্রবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে মেঘনা নদীর ধমারচর এলাকা থেকে তাদের অপহরণ করা হয়েছে। অপহৃতরা হচ্ছেন, নিঝুম দ্বীপ ইউনিয়নের বাসিন্দা আনোয়ার মাঝি (৩৯), আবু তাহের (৩২) ও মো. তানজিম (২১)।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার বিকেলে একদল জলদস্যু বাহিনী নিঝুমদ্বীপ ইউনিয়নের মেঘনা নদীর ধমারচর এলাকায় জেলেদের মাছ ধরা নৌকায় অর্তকিত হামলা চালায়। এসময় তারা একটি মাছধরার নৌকা’সহ ৩ জেলেকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

কোষ্টগার্ডের হাতিয়ার ষ্টেশন কমান্ডার লে. আসিফ মোহাম্মদ আলী আশিক ১৭ জেলেকে মুক্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, বিকেলে ধমারচর এলাকা থেকে পুনঃরায় ৩ জেলে অপহরণের কথা শুনেছি। তবে অপহৃতদের পরিবারের পক্ষ থেকে এখনো কোন অভিযোগ পায়নি।

উল্লেখ্য, গত বুধবার ভোর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত বড় ইঞ্জিনচালিত নৌকা নিয়ে জলদস্যু বাহিনীর ২০-২৫জন অস্ত্রধারী সদস্য মেঘনার শাখা সুর্যমুখী খালের বিভিন্ন স্থানে মাছ ধরা অবস্থায় জেলেদের উপর অতর্কিতে হামলা চালায়। দস্যুরা সাত-আটটি মাছ ধরা ট্রলারে ডাকাতি করে নগদ টাকা, মালামাল লুট করে এবং ১৭ জন জেলেকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। শুক্রবার সকালে অপহৃতদের পরিবার থেকে মুুক্তিপণ নিয়ে সূর্যমুখী খাল এলাকায় ছেড়ে দিয়ে যায় দস্যু বাহিনী।

শামীমুজ্জামান শামীম/এমআরআর

Leave a Reply

Your email address will not be published.