হাতিয়ায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত-১

নোয়াখালীর বিচ্ছিন্ন দ্বীপ হাতিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড খবির মিয়া গ্রামে সন্ত্রাসীর গুলীতে নিরব উদ্দিন (১১) নামে এক শিশু গুলিবিদ্ধ হয়। ঘটনায় আরো ১ জন আহত হয়েছেন।

রবিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে নিরবের মৃত্যু হয়। নিহত নিরব উদ্দিন হাতিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড খবির মিয়া গ্রামের মিরাজ উদ্দিনের ছেলে। সে স্থানীয় রহমানিয়া ফাজিল মাদ্রাসার পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র। নিহত নিরব উদ্দিনের পিতা মিরাজ উদ্দিনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরন করা হয় ।

নিহতের চাচা বাসার জানান, তার ভাই মিরাজ উদ্দিন স্থানীয় খবির মিয়ার বাজারে বাটারী চালিত রিকশার ব্যাটারী চার্জ দেয়ার ব্যবসা করতো। ওই ব্যবসা নিয়ে মিরাজের সাথে স্থানীয় জিল্লু নামের এক ব্যক্তির দ্বন্ধ ছিল। কয়েকদিন আগে জিল্লু মিরাজের কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে। পরে অবস্থা বেগতিক দেখে মিরাজ তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে ব্যাটারী ও মেশিন পত্র বাড়ীতে নিয়ে আসে। এর জের ধরে রবিবার রাত ৮টার দিকে জিল্লুর সন্ত্রাসী বাহিনী মিরাজের বাড়ীতে হামলা করে। এসময় মিরাজ উদ্দিন ও তার ছেলে নিরব উদ্দিন রান্না ঘরে বসা অবস্থায় ছিল। হামলাকারী সন্ত্রাসীদের ছোঁড়া এলোপাতাড়ি গুলিতে নিরব উদ্দিন ও তার পিতা মিরাজ উদ্দিন গুলিবিদ্ধ হয়।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছালে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় প্রথমে মিরাজ উদ্দিন ও তার ছেলে নিরবকে হাতিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে গুলিবিদ্ধ নিরবের অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসকদের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে নদীতে তার মৃত্যু হয়। মিরাজ উদ্দিনকে আশংকাজনক অবস্থায় ঢাকায় প্রেরন করা হয়েছে।

হাতিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. কামরুজ্জামান শিকদার জানান, সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় মিরাজ ও তার ছেলে নিরব গুলিবিদ্ধ হয়েছে। গুলিবিদ্ধ নিরবকে নোয়াখালী নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলার প্রস্তুতি চলছে। ঘটনায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.