স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাত্রার ব্যাপারে আগ্রহী বাংলাদেশিরা

1476966394অনলাইন ডেস্ক
টেলিকম ও প্রযুক্তি সেবাদাতা টেলিনর গ্রুপের স্বাস্থ্যসেবাগত সহযোগী প্রতিষ্ঠান টেলিনর হেলথ স্বাস্থ্যসেবার প্রতি বাংলাদেশিদের ভাবনা ও মনোভাব জানতে দেশজুড়ে একটি জরিপ পরিচালনা করেছে।
বৃহস্পতিবার অসংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধে দাতব্য সংস্থা বাংলাদেশ নেটওয়ার্ক ফর এনসিডি কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন (বিএনএনসিপি) এবং বিশিষ্ট স্বাস্থ্যসেবা প্রতিষ্ঠানসমূহ যারা ক্যান্সার, ডায়াবেটিস ও হৃদরোগের মতো অসংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধে কাজ করে যাচ্ছে তাদের নিয়ে অনুষ্ঠিত একটি গোলটেবিল বৈঠকে জরিপের ফলাফল প্রকাশ করা হয়।
জরিপের ফলাফল অনুযায়ী, ভালো স্বাস্থ্য অর্জনে প্রাত্যহিক জীবনে কি ধরনের পরিবর্তন আনতে হবে সে সম্পর্কে সবাই অবগত। জরিপকৃতদের মধ্যে অর্ধেকই জানিয়েছেন সুস্বাস্থ্য রক্ষায় ‘স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণ’ তাদের লক্ষ্য। ধূমপায়ী উত্তরদাতাদের (জরিপকৃত পুরুষদের ৫০ শতাংশ) এক তৃতীয়াংশ জানিয়েছেন, তারা ধূমপান ছেড়ে দিতে চান। অপর্যাপ্ত খাবার গ্রহণ ও ধূমপান, দৈনিক শারীরিক অনুশীলন না করা এবং মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপানের কারণে অংসক্রামক রোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকখানি বেড়ে যায়।
জরিপে উঠে এসেছে, সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে জীবনযাত্রার পরিবর্তন এবং কিভাবে এ পরিবর্তন আনা সম্ভব এ সম্পর্কে সবাইকে অবগত করাই সবচেয়ে কঠিন কাজ। স্বাস্থ্যসম্মত খাবার গ্রহণের লক্ষ্য ছাড়াও জরিপকৃত নারী ও পুরুষের ৮৪ শতাংশ জানিয়েছেন প্রতিদিন কি পরিমাণ ক্যালরি গ্রহণ করা উচিৎ সে সম্পর্কে তারা জানেন না। এছাড়াও, জরিপকৃতদের মাত্র ৩.৫ শতাংশ জানিয়েছেন তারা দৈনিক দুবার ফল খান এবং জরিপে আরও জানা গেছে জরিপকৃতরা দিনে নিয়ম অনুযায়ী পাঁচবার সবজি খান না। যদিও বেশিরভাগ উত্তরদাতা জানিয়েছেন, সপ্তাহে অন্তত পাঁচবার শারীরিক অনুশীলন করা উচিৎ এবং এ ব্যাপারে তারা অবগত। যদিও বেশিরভাগ মানুষ পর্যাপ্ত জ্ঞান ও সময়ের কারণে নিয়মিত শারীরিক অনুশীলন করতে পারেন না।
মানুষ অসংক্রামক ব্যাধি সম্পর্কে সচেতন কিন্তু এর কারণ ও প্রতিরোধ সম্পর্কে জানেন না। উত্তরদাতাদের ৯০ শতাংশ জানেন যে ধূমপান হৃদরোগের ঝুঁকি অনেকখানি বাড়িয়ে দেয়, ৭০ শতাংশ জানেন উচ্চ রক্তচাপ মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণের কারণ এবং ডায়াবেটিস বাংলাদেশের সাধারণ রোগ বলে বিবেচিত। একইসাথে ৫০ শতাংশের বেশি মানুষ বিশ্বাস করে না ডায়াবেটিস হবার আগে এটা প্রতিরোধ করা সম্ভব। জরিপকৃতদের ৬৬ শতাংশ বিশ্বাস করে, তারা ডায়াবেটিস আক্রান্ত নয়।
জরিপের তথ্য অনুযায়ী, স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণে ব্যয়ভার মানুষের জন্য প্রতিবন্ধকতারূপে কাজ করে। জরিপকৃতদের অর্ধেক মনে করেন প্রয়োজনের সময় তারা মানসম্পন্ন স্বাস্থ্যসেবা পান না। ২৪ শতাংশ মনে করে স্বাস্থ্যসেবা গ্রহণে বাড়তি খরচ প্রতিবন্ধকতা হিসেবে কাজ করে এবং ২৪ শতাংশ মনে করে সেবাগ্রহণে আরেকটি প্রতিবন্ধকতা হচ্ছে সেবা পেতে দীর্ঘ অপেক্ষা ও দীর্ঘ দূরত্ব।
এ বছরের মার্চ ও এপ্রিল মাসে জরিপ পরিচালনাকারী প্রতিষ্ঠান নিয়েলসন এ স্বাস্থ্য জরিপটি পরিচালনা করে। বিভিন্ন পেশা ও শ্রেণীর ১১শ’ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষের মধ্যে জরিপটি পরিচালিত হয়। দেশের সাতটি বিভাগে ২৩:২৭ অনুপাতে শহর ও গ্রামাঞ্চলে এবং ৫০:৫০ অনুপাতে নারী ও পুরুষের মধ্যে জরিপটি পরিচালনা করা হয়।
টেলিনর হেলথের চিফ মেডিকেল অফিসার ড. ফ্রেড হার্শ অসংক্রামক রোগকে একটি বৈশ্বিক সমস্যা উল্লেখ করে বলেন, শুধু বাংলাদেশই একমাত্র দেশ নয় দ্রুত বর্ধনশীল অসংক্রামক রোগ সুস্থ জীবন যাপনে প্রতিকূলতার ক্ষেত্রে সবার জন্যই অভিশাপ স্বরূপ। এ সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশিদের আগ্রহ দেখে আমরা স্বাস্থ্যসেবা খাতে পরিবর্তন আনার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী।
মানুষের মনোভাব পরিবর্তনের মাধ্যমে অসংক্রামক ব্যাধি প্রতিরোধে মোবাইল প্রযুক্তিকে আরও কিভাবে সহজলভ্য করা যায় তা নিয়ে যৌথভাবে কাজ করবে বিএনএনসিপি ও টেলিনর হেলথ। অন্যান্য সুবিধাসহ স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাপনে স্বাস্থ্যসেবাকে আরো কিভাবে সহজলভ্য এবং সাশ্রয়ী করে তোলা যায় সে সম্পর্কে গ্রাহকদের প্রয়োজনীয় তথ্য প্রদান করে টনিক। গ্রামীণফোনের গ্রাহকরা বিনামূল্যে টনিকের সেবা গ্রহণ করতে পারবেন। যাত্রা শুরু করার মাত্র চার মাসের মধ্যে টনিক ১০ লাখ গ্রাহকের মাইলফলক ছুঁয়েছে।

One Response to "স্বাস্থ্যসম্মত জীবনযাত্রার ব্যাপারে আগ্রহী বাংলাদেশিরা"

  1. Josepharife   July 22, 2017 at 1:22 pm

    viagra cialis online order
    online cialis
    buy cialis uk cheap
    cheap cialis online
    cialis pills

    Reply

Leave a Reply

Your email address will not be published.