‘জিম করার সুযোগ পাচ্ছেন সৌদি নারীরা’

নোয়াখালী নিউজ ডেস্ক: খোলস থেকে ধীরে ধীরে বেরিয়ে আসছেন সৌদি আরবের নারীরা। কট্টরপন্থী সৌদি আরবের ইতিহাসে গত বছর প্রথমবারের মতো স্থানীয় নির্বাচনে অংশ নেয়ার সুযোগ পান তারা। এবার সৌদি নারীরা ব্যায়ামাগারে গিয়ে শরীরচর্চা করার সুযোগ পাচ্ছেন।

দেশটির জেনারেল অথরিটি অব স্পোর্টসের নারী বিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট ও রাজকুমারী রিমা বিনতে বন্দর বলেছেন, চলতি মাসের শেষের দিকে নারীদের জন্য ব্যায়ামাগারের লাইসেন্সের অনুমোদন দেয়া হবে।

আরবি ভাষার স্থানীয় দৈনিক ওকাজের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রত্যেক জেলা ও এর আশপাশের এলাকায় ব্যায়ামাগার চালুর লক্ষ্য নির্ধারণ করছে সরকার। এই প্রক্রিয়া বাস্তবায়নে (তিন মন্ত্রণালয়) শ্রম, গ্রাম উন্নয়ন ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় কাজ শুরু করেছে।

সৌদি রাজকুমারী বলেন, প্রতিযোগিতামূলক কার্যক্রম যেমন ফুটবল, ভলিবল, বাস্কেটবল ও টেনিসের জন্য ব্যায়ামাগারের লাইসেন্স ইস্যু করা হবে না। তবে সাঁতার, দৌড় ও শরীর গঠনের কৌশলগত উন্নয়নের দিকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে লাইসেন্স দেয়া হবে। যাতে ওজন কমিয়ে ফিটনেস ধরে রাখা ও শরীর গঠন করতে পারবেন নারীরা।

নারীদের জিমে উৎসাহিত করতে আগামী দুই মাসের মধ্যে কর্মশালা ও সেমিনার অনুষ্ঠিত হবে। নারীদের জিমের খরচ ব্যয়বহুল হওয়ায় কর্তৃপক্ষ সমাধান খুঁজছে।

তবে সৌদি সমাজে এর বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে কিনা; এমন প্রশ্নের জবাবে রাজকুমারী রিমা বিনতে বন্দর বলেন, ‘সমাজকে বোঝানোর দায়িত্ব আমার নয়। রোগবালাই থেকে আমাদের তরুণীদের সুস্থ জীবন-যাপনের দরজা খুলে দিতে আমার ক্ষমতা খুবই সীমিত।’

এনআই/১২ ফেব্রুয়ারি

Leave a Reply

Your email address will not be published.